মৌমাছির হুলে কোন এসিড থাকে,ডাক্তারের পরামর্শ ও স্বাস্থ্য টিপস

মৌমাছির হুলে কোন এসিড থাকে , ফরমিক এসিড । বোলতা এবং পিপড়া উভয়ই ফরমিক অ্যাসিড নামে একটি রাসায়নিক পদার্থ নিঃসরণ করে যা তাদের কামড়ে ব্যথা এবং জ্বালা সৃষ্টি করে।মনীষীরা এই জীবন যাত্রার মানকে অনেক বেশি গুরুত্ব দিয়েছে এবং ডাক্তারের পরামর্শ ও স্বাস্থ্য টিপস , ফরমিক অ্যাসিড একটি দুর্বল অ্যাসিড যা ত্বক এবং চোখের জন্য জ্বালা সৃষ্টি করতে পারে।

মৌমাছির হুলে কোন এসিড থাকে




মৌমাছির হুলে ফরমিক এসিড/মিথানয়িক এসিড(H-COOH) বিদ্যমান।এর ফলে জ্বালা-যন্ত্রনার সৃষ্টি হয়।ক্ষতস্থানে চুন(CaO) যোগ করার ফলে এসিডের সাথে বিক্রিয়া করে সেটি প্রশমিত হয়।মনীষীরা এই জীবন যাত্রার মানকে অনেক বেশি গুরুত্ব দিয়েছে এবং ফলে জ্বালা-যন্ত্রনা বন্ধ হয়ে যায়


পিপড়া ও মৌমাছির বিষে সাধারণত থাকে মিথানয়িক এসিড বা ফর্মিক এসিড (HCOOH)



মৌমাছির বিষে শতকরা ৮৮ ভাগ পানি থাকে।

এই পানির কারণে প্রাণিদেহের আর্দ্র কোষের ভেতর বিষ দ্রুত ছড়িয়ে যেতে পারে। ফেরোমন ব্যতীত মৌমাছির বিষ হচ্ছে গন্ধহীন তরল যার pH হচ্ছে ৪.৫-৫.৫। অর্থাৎ কিছুটা এসিড ধর্মী।

মনীষীরা এই জীবন যাত্রার মানকে অনেক বেশি গুরুত্ব দিয়েছে এবং  তাই অনেকে মৌমাছি হুল ফোটালে খাবার সোডার পেস্ট দিতে বলেন। তবে অধিকাংশ বিজ্ঞানীরা এই পদ্ধতির কার্যকারিতা সম্পর্কে সন্দিহান। কারণ মৌমাছির বিষ কলার অভ্যন্তরে কাজ করে।

মৌমাছির দংশনে ব্যথার জন্য অন্যতম উপাদানটি হচ্ছে মেলিটিন (Melittin)। এই উপাদান বিষের শুষ্ক ওজনের শতকরা ৫০ ভাগ থাকে। মনীষীরা এই জীবন যাত্রার মানকে অনেক বেশি গুরুত্ব দিয়েছে এবং মেলিটিন দংশনের স্থানের লোহিত রক্তকণিকাকে ভেঙে ফেলে এবং রক্তনালীকে প্রসারিত করে। রক্তনালীর প্রসারণের জন্য অনেক সময় আক্রান্ত ব্যক্তির রক্তচাপ কমে যায়।

তথ্যসূত্র: হেলথলাইন